মঙ্গলবার বছরের শেষ পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ, বাংলাদেশ থেকে কি দেখা যাবে?

0
16

পিভিউ অনলাইন ডেস্ক :  মঙ্গলবার, ৮ নভেম্বর, পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ হচ্ছে ঘোষণা করেছে নাসা। তিন বছর পর আবার এই বিরল মহাজাগতিক মুহূর্তের সাক্ষী হবে পৃথিবী। যেখানে সূর্য, চাঁদ আর পৃথিবী আসবে একই সরলরেখায়। সূর্যের আলোকে আড়াল করে চাঁদ আর সূর্যের মাঝে চলে আসবে পৃথিবী। ফলে পৃথিবীর ছায়া, যার আরেক নাম ‘আম্ব্রা’ তা পুরোপুরি ঢেকে ফেলবে চাঁদকে। গ্রহণ লাগবে চাঁদে। মঙ্গলবারই পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণের এই বিরল ঘটনা দেখা যাবে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে।  তবে বাংলাদেশ থেকে এই বিরল মুহূর্তের সাক্ষী হওয়ার সুযোগ প্রায় নেই বললেই চলে।মঙ্গলবার, ৮ নভেম্বর, পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ হচ্ছে ঘোষণা করেছে নাসা। তিন বছর পর আবার এই বিরল মহাজাগতিক মুহূর্তের সাক্ষী হবে পৃথিবী। যেখানে সূর্য, চাঁদ আর পৃথিবী আসবে একই সরলরেখায়। সূর্যের আলোকে আড়াল করে চাঁদ আর সূর্যের মাঝে চলে আসবে পৃথিবী। ফলে পৃথিবীর ছায়া, যার আরেক নাম ‘আম্ব্রা’ তা পুরোপুরি ঢেকে ফেলবে চাঁদকে। গ্রহণ লাগবে চাঁদে। মঙ্গলবারই পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণের এই বিরল ঘটনা দেখা যাবে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে।  তবে বাংলাদেশ থেকে এই বিরল মুহূর্তের সাক্ষী হওয়ার সুযোগ প্রায় নেই বললেই চলে।

আন্তর্জাতিক সময় (জিএমটি) সকাল ৯টা ১৭ মিনিটে শুরু হবে চন্দ্রগ্রহণ। ৮৫ মিনিট থেকে তা আবার ছেড়ে যাবে ১০টা ৪২ মিনিটে। সেই হিসাবে বাংলাদেশ সময়ে ৩টো ১০ মিনিটে গ্রহণ শুরু হয়ে পূর্ণচন্দ্রগ্রহণ শুরু হবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। সাড়ে চারটের সময় তা পূর্ণ অবস্থায় পৌঁছবে। এবং আবার ছেড়ে যাবে বিকেল ৫টা ১১ মিনিটে। ফলে চন্দ্রগ্রহণ যখন ছেড়ে যাবে, তখন চাঁদই উঠবে না দেশে। তবে যে সমস্ত দেশে পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ দেখা যাবে তাঁরা টকটকে লাল রঙের চাঁদ দেখতে পাবেন আকাশে।

কেন গ্রহণ লাগা চাঁদের রং লাল হয় তার ব্যাখ্যা দিয়ে নাসা জানিয়েছে, প্রথমত পৃথিবীর ছায়া আমব্রা চাঁদের ওই অদ্ভুত রঙ তৈরি করে। নাসা আরও স্পষ্ট করে জানিয়েছে, যে কারণে আমরা সকালে নীল রঙের আকাশ দেখি এবং সূর্যাস্তের সময় লাল আকাশ দেখি সেই একই ভাবে চাঁদের রংও লাল দেখায়। নাসা জানিয়েছে, পৃথিবীর আবহাওয়া মণ্ডলে থাকা ধুলিকণায় প্রতিফলিত হয়েই ওই রঙ চোখে পড়ে পৃথিবীবাসীর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here